ওবায়দুল কাদেরের ছোট ভাই আবদুল কাদের মির্জার প্রেস বিজ্ঞপ্তি

সুলতান বিন সাইফ
নোয়াখালী প্রতিনিধিঃ

সর্বকালের সর্বশ্রেষ্ঠ বাঙালী জাতীর জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের নেতৃত্বে মহান মুক্তিযুদ্ধের মাধ্যমে বাংলাদেশ স্বাধীন হয়েছে। দূর্ভাগ্য,দেশ স্বাধীন হওয়ার পর ১৯৭৫ সালের ১৫ আগষ্ট বঙ্গবন্ধুকে স্বাধীনতার বিরোধী চক্র স্বপরিবারে হত্যা করে, পিছিয়ে দেওয়া হয় বাংলাদেশের অগ্রযাত্রাকে।

বঙ্গবন্ধুর সুযোগ্য কন্যা মাননীয় প্রধানমন্ত্রী দেশরত্ন শেখ হাসিনা ১৯৮১ সালে দেশে আসার পর থেকে বাংলাদেশ আওয়ামীলীগকে সুসংগঠিত করেন। দেশে গণতন্ত্র পুনরুদ্ধদ্বারে স্বৈরাচার বিরোধী আন্দোলনের নেতৃত্ব দেন। ১৯৯৬ সালে পুণরায়ে সুষ্ঠ নিরপেক্ষ নির্বাচনের মাধ্যমে শেখ হাসিনা রাস্ট্রিয় ক্ষমতায় অধিষ্ঠিত হন,অভূতপূর্ব উন্নয়ন সাধন করেন। ২০০৮ সাল থেকে অধ্যবধি বাংলাদেশের যে সকল উন্নয়ন অর্জন হয়েছেও হচ্ছে তার সব কিছুই দেশরত্ন প্রধান মন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে হচ্ছে।

পদ্মাসেতু, মেট্রোরেল, কর্ণফুলী টানেলসহ সকল মেগা প্রজেক্ট বাস্তবায়ন হতে চলছে। এ ছাড়ো সমুদ্র সিমানা বিজয়,গভীর সমুদ্র বন্দর নির্মাণ, স্থল বন্দর স্থাপন,বঙ্গবন্ধু সেটেলাইট উৎক্ষেপণ, রেমিট্যান্স বৃদ্ধি, বৈদেশিক রিজার্ভ বৃদ্ধি, বড় বড় শহর গুলোতে ও জেলায় ফোরলেন নির্মাণ, মাথা পিচু আয় বৃদ্ধি, সার্বিকভাবে জাতীয় প্রবৃত্তিবৃদ্ধি, বড় বড় প্রকৃতিক দুর্যোগ সহ করোনাকালীন সময়ে দূর্যোগ মোকাবিলা করে দেশকে ডিজিটাল বাংলাদেশ করার মানষী আওয়ামীলীগ সভানেত্রী, মাননীয় প্রধানমন্ত্রী দেশরত্ন শেখ হাসিনা নির্লস কাজ করে যাচ্ছেন।

বাংলাদেশ আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক গগণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওওবায়দুল কাদের এমপি নিজ নির্বাচনী এলাকা ছাড়াও বৃহত্তর নোয়াখালীর জাতীয় সারাদেশে উউন্নয়নের ভূমিকা করে যাচ্ছেন। জিয়াউর রহমান হ্যাঁ, না ভোটের মাধ্যমে এই দেশের মানুষের ভোটের অধিকার কেড়ে নিয়েছিল। শেখ হাসিনার নেতৃত্বে আওয়ামীলীগ মানুষের ভোটের অধিকার প্রতিষ্ঠার চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে।

সাম্প্রতিক সময়ে বসুরহাট পৌরসভা নির্বাচন উপলক্ষে বিভিন্ন সভায় দেওয়া আমার বক্তব্য নিয়ে একটি কুচক্রিমহল নানা ষড়যন্ত্রে মেতে উঠেছে। নির্বাচন নিয়ে নানা বিভ্রান্তি ছড়াচ্ছে মানুষের মাঝে। আমি শুধু একটি অনুকরণীয় দৃষ্টান্ত স্থাপনের উদ্দ্যেশ্যে ১৬ জানুয়ারি অনুষ্ঠিব্য বসুরহাট পৌরসভা নির্বাচন অবাধ গ্রহণযোগ্য ও প্রভাব মুক্ত নিরপেক্ষ নির্বাচন যেন হয়, এই জন্য নানা নির্বাচনী কর্মসূচিতে কথা গুলো বলেছি।

এই ছাড়াও বিগত এক যুগ শেখ হাসিনার নেতৃত্বে দেশের যে অভূতপূর্ব উন্নয়ন হয়েছে সেই বিষয় গুলো আমার বক্তব্যে আমি উল্লেখ করেছি। বৃহত্তর নোয়াখালীতে কিছু কিছু চামচা নেতা আছেন যারা বলেন উমুক নেতা তমুক নেতার নেতৃত্বে বিএনপির দূর্গ ভেঙ্গেছে, সত্যি কথা হলো সাধারণ মানুষ বলে, শেখ হাসিনা একলা ( ওস্বর) কি করেন। এতে প্রতিয়মান হয়যে, শেখ হাসিনার জন প্রিয়তার কারণে বৃহত্তর নোয়াখালীতে বিএনপির দূর্গিভেঙ্গে আওয়ামী লীগের জনপ্রিয়তা বেড়েছে।

কিন্তু কোন কোন গণমাধ্যম সেগুলো বিস্তারিত উল্লেখ না করে বিভ্রান্তি সৃষ্টির উদ্দেশ্য আমার বক্তব্য খন্ড বিশেষ প্রকাশ করেছে। আমি শুধু মাত্র বৃহত্তর নোয়াখালীর আঞ্চলিক রাজনীতি নিয়ে নানা অনিয়মের কথা বলেছিলাম। জাতীয় ইস্যুতে আমি কোন বক্তব্য রাখিনি।

আবদুল কাদের মির্জা
মেয়র বসুরহাট পৌরসভা

Share
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *