বাংলাদেশ মফস্বল সাংবাদিক সোসাইটির কেন্দ্রীয় সদস্য হলেন সাংবাদিক রতন – সময় প্রবাহ নিউজ

 

ডা.এম.এ.মান্নান টাংগাইল জেলা প্রতিনিধি : টাঙ্গাইলের নাগরপুরের সিনিয়র সাংবাদিক মো: আমজাদ হোসেন রতন বাংলাদেশ মফস্বল সাংবাদিক সোসাইটি কেন্দ্রীয় নির্বাহী পরিষদের সদস্য নির্বাচিত হয়েছেন। গত শনিবার, ২০ মার্চ। ২০২১ খুলনা হোটেল রয়েল ইন্টারন্যাশনাল কনফারেন্স হল রুমে বিকাল ৩.৩০ টায় বাংলাদেশ মফস্বল সাংবাদিক সোসাইটির কেন্দ্রীয় সম্মেলনে ২০২১ সেশনের কার্যনির্বাহী কমিটির কেন্দ্রীয় নির্বাহী পরিষদের সদস্য হিসাবে সিনিয়র সাংবাদিক মো.আমজাদ হোসেন রতন সাহেবের নাম ঘোষণা করেন। এতে প্রধান অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ সরকারের প্রতিমন্ত্রী বেগম মুন্নুজান সুফিয়ান এমপি। নব নির্বাচিত কেন্দ্রীয় সদস্য সাংবাদিক মো.আমজাদ হোসেন রতনের সংক্ষিপ্ত জীবনি তুলে ধরা হল— জম্ম ও পরিচয়-টাংগাইল জেলা নাগরপুর উপজেলা ঘিওরকোল গ্রামে এক সম্ভ্রান্ত মুসলীম পরিবারে জম্ম গ্রহন করেন।তিনি দুই কন্যা সন্তানের জনক। শিক্ষা জীবন-১৯৯০ সালে মেধার সাক্ষর রেখে এসএসসি পাশ করেন পরবর্তী উচ্চ শিক্ষার জন্য নাগরপুর সরকারি কলেজ ও চৌহালী ডিগ্রী কলেজে অনেক সুনামের সহিত শিক্ষকদের প্রিয় ছাত্র হিসাবে লেখাপড়া করেছেন। কর্ম ও পেশা-সাংবাদিক আমজাদ হোসেন রতন একাধিকবার বিদেশে কর্মরত ছিলেন, বর্তমানে তার হাতের গড়া ব্যবসায়ী প্রতিষ্ঠান রত্না মিম টেলিকম সার্ভিসে একজন প্রধান টেকনিশিয়ান সহ প্রধান পরিচালক হিসাবে কর্মরত আছেন। তিনি ইতিপূর্বে যুব উন্নয়ন মোবাইল মেরামত প্রশিক্ষক হিসেবে কাজ করেছেন। মোবাইল টেকনিশিয়ান হিসেবে পুরাতন ও বেশ পরিচিতি। নাগরপুর বাসী সবাই সাংবাদিক রতন নামে চিনে। সাংবাদিকতা জীবন-বর্তমান দৈনিক জবাবদিহি, দৈনিক ডেল্টা টাইম, সাপ্তাহিক চলন বিলের আলো পত্রিকা সহ জনপ্রিয় কয়েকটি অনলাইন পোর্টালে স্টাফ রির্পোটার, নিজস্ব প্রতিনিধি, স্যাটেলাইট টেলিভিশন চ্যানেলের নাগরপুর উপজেলা প্রতিনিধি হিসাবে সৎ ও সাহসীকতার সহিত একজন দক্ষ ন্যায়ের পক্ষের কলম সৈনিক হিসাবে দায়িত্ব পালন করে আসছেন। নেত্বত্ব ও সংগঠক- জ্বনাব সাংবাদিক রতন নাগরপুর প্রেস ক্লাবের প্রতিষ্ঠাতা যুগ্ন সাধারন সম্পাদক ছিলেন, বর্তমানে নির্বাহী সদস্য হিসাবে দায়িত্ব পালন করে আসছেন। এছাড়াও নাগরপুর প্রেস ইউনিট এর সাবেক সভাপতি ছিলেন। তার বহুমুখী কর্মপ্রতিভা প্রমান হিসাবে ইতিপূর্বে ইন্টারন্যাশনাল সিনিয়র জার্নালিস্ট অ্যাসোসিয়েশন ভারতের বিহার রাজ্যে অনুষ্ঠিত অ্যাওয়ার্ড প্রোগ্রামে মনোনীত হয়ে ভারত সফর করেন এবং বিশিষ্ট জনের কাছ থেকে রত্ন অ্যাওয়ার্ড, সম্মাননা স্মারক গ্রহণ করেন। তিনি ভারত বাংলার দুই বাংলা অনলাইন সাংবাদিক ফেডারেশনের কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য হিসাবে অনেকদিন যাবত দায়িত্ব পালন করে আসছেন। পত্রিকা জগতে হাটি হাটি পা করে দীর্ঘ দুই যুগের বেশী ধরে অনেক সুনামের সহিত দায়িত্ব পালন করে আসেন। তিনি নাগরপুরের সিনিয়র সাংবাদিক হিসাবে ইতিমধ্যে সুপরিচিত লাভ করেন।মহামারি করোনা ভাইরাসে যখন সারা বিশ্বের ন্যায় পুরো নাগরপুর লকডাউন কেউ বাড়ির বাহিরে বের হতেন না ভয়ে ঠিক তখনও নিজের জীবন বাজী রেখে একজন দেশপ্রেমিক মিডিয়া কর্মী হিসাবে নিয়মিত সংবাদ সংগ্রহ ও প্রকাশ করেছেন। অন্যান্য সামাজিক কর্মকান্ডে- জ্বনাব সাংবাদিক রতন সমাজ উন্নয়নে সমাজের বিভিন্ন সামাজিক সংগঠনের সাথে সক্রিয়ভাবে একজন পরিশ্রমী কর্মী হিসাবে কাজ করে যাচ্ছেন। তিনি বিভিন্ন সময় স্কুল পরিচালনা পরিষদের সদস্য হিসাবে দায়িত্ব পালন করেছেন। তিনি একজন স্বাস্থ্য পরামর্শক বর্তমানে নাগরপুরের ঐতিহ্যবাহী মুকতাদির হোমিও চিকিৎসা কেন্দ্রের উপদেষ্টা হিসাবে দায়িত্ব পালন করছেন। নাম প্রকাশে ইচ্ছুক নয় এমন এক সমাজসেবক ও বিশিষ্ট শিক্ষাবিদ বলেন-সাংবাদিক আমজাদ হোসেন রতন নাগরপুরের আইকন কারন তিনি সৎ, সাহসী ও ন্যায়ের পক্ষে তার লেখনীর মাধ্যমে সত্য সংবাদ প্রকাশ করে যাচ্ছেন। তিনি তার জীবনের সর্বাঙ্গীন উন্নতি ও সাফল্য কামনা করেন। তিনি আরও বলেন- সাংবাদিক রতন আমার খুব পরিচিতি তার আচার ব্যবহারে আমরা নাগরপুর বাসী খুশী তিনি একজন বহুমুখী কর্ম প্রতিভাময়ী মানুষ। তার গুণ বলে শেষ করা যাবে না । বাংলাদেশ মফস্বর সাংবাদিক সোসাইটির কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য পদে নির্বাচিত হওয়ায় আমরা নাগরপুর বাসী গর্বিত ও আনন্দিত। আমি মনে করি এটা তার প্রাপ্ত কারন, যোগ্য হিসাবে তিনি কেন্দ্রীয় সাংবাদিক নেতা হয়েছেন। নব নির্বাচিত কার্যকরী সদস্য ও সিনিয়র সাংবাদিক মো.আমজাদ হোসেন রতন বলেন, আগামীতে দেশের সকল সাংবাদিকদের স্বার্থ রক্ষায় ও তাদের বিপদে আপদে পাশে থাকব। দেশের যে কোন এলাকা থেকে কোন সাংবাদিক সহযোগিতা চাইলে অবশ্যই তাকে সহযোগিতা করব। সংবাদ কর্মীদের অধিকার আদায়ে বাংলাদেশ মফস্বল সাংবাদিক সোসাইটি কাজ করবে। তিনি আরও বলেন,অত্র সোসাইটির মাধ্যমে ইনশাআল্লাহ্ আমরা সকলে মিলে সাংবাদিকদের উন্নয়নে সাথী হব। পরিশেষে বলতে চাই আমাকে কেন্দ্রীয় পরিষদের সদস্য নির্বাচিত করায় আমি নিজেকে ধন্য মনে করছি কারন আমি এখন সাংবাদিক প্রতিনিধি হিসাবে সংবাদকর্মীদের সার্বিক সহযোগিতা করতে পারবো। যারা আমাকে সদস্য হিসাবে নির্বাচিত করেছেন তাদের প্রতি আমার চির কৃতজ্ঞতা থাকবে। আর নব নির্বাচিত সকল নেত্ববৃন্দকে জানাই অভিনন্দন ও ফুলেল শুভেচ্ছা। সবাই ভাল থাকবেন। করোনা প্রতিরোধে সচেতন থাকবেন। আমার জন্য সবাই দোয়া করবেন। আল্লাহ হাফেজ। উল্লেখ্যে গত শনিবার, ২০ মার্চ বাংলাদেশ মফস্বল সাংবাদিক সোসাইটির কেন্দ্রীয় সম্মেলনে ২০২১ সেশনের ১৫১ জন বিশিষ্ট কমিটি ঘোষনা করেন।

Share
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *