১০ লক্ষ পরিবারের প্ল্যাটফর্ম তৈরি করলো “উই”-সময় প্রবাহ নিউজ।

মোঃ আল আমিন, সম্পাদকঃ

উইমেন এন্ড ই-কমার্স ফোরাম (উই) এখন দশ লক্ষ সদস্যের পরিবার। ফেসবুক ভিত্তিক এই প্ল্যাটফর্মটি এক বছরেরও বেশি সময় ধরে দেশিপণ্যের প্রচার, প্রসার এবং বিক্রি বৃদ্ধি নিয়ে কাজ করছে। কাজ করছে দেশিপণ্যের উদ্যোক্তাদের ই-কমার্সে টিকে থাকার দক্ষতা নিয়েও। উই এর যাত্রা ২০১৭ সালে শুরু, এটি মাত্র তিন হাজার সদস্য নিয়ে শুরু হয়। ২০১৯ সালের আগস্টে ই-ক্যাবের ফাউন্ডার প্রেসিডেন্ট রাজিব আহমেদ দায়িত্ব নেন গ্রুপটি পরিচালনা করার এবং তারপর উই শুধু দেশিপণ্যের জন্য কাজ শুরু করে। এক বছর পর গ্রুপটিতে প্রায় ১৫লক্ষ পোস্টে বিভিন্ন তথ্য সংবলিত লেখা রয়েছে যা শুধুই বাংলাদেশের নিজস্ব পণ্য নিয়ে। যা সচরাচর অন্য কোথাও দেখা যায় নি। গ্রুপটির নিয়মের কড়াকড়ির জন্যেই গ্রুপটি এক বছরে তিন হাজার থেকে দশ লক্ষের সদস্যে পরিণত হয়েছে।

এ বিষয়ে উই এর প্রেসিডেন্ট নাসিমা আক্তার নিশা বলেন, আমরা শুধু দেশিপণ্য, দেশিপণ্যের উদ্যোক্তা এবং তাদের দক্ষতা বৃদ্ধির জন্য কাজ করতে চেয়েছি সবসময়। এখানে শুধু দেশিপণ্যের উদ্যোক্তাদের নিঃস্বার্থভাবে সাপোর্ট দেওয়া হয় এইজন্য উই এত দ্রুত এগিয়েছে।

উই শুধু দেশী পণ্য এবং উদ্যোক্তাদের মিলনমেলা ই নয়; বরং দেশী পণ্য সম্পর্কে জানা এবং জানানোর জন্য একটা ভার্চুয়াল শিক্ষা প্রতিষ্ঠান। সারা দেশের বিভিন্ন ঐতিহ্যবাহী পন্য নিয়ে উদ্যোক্তাদের আত্নপ্রকাশ এর শ্রেষ্ঠ প্ল্যাটফর্ম হলো উই। তাই উই মানে বাংলাদেশের প্রতিচ্ছবি।

উই ১০ লক্ষ্য মেম্বারের পরিবার এই বিশাল মাইল ফলক আমাদের সকলের জন্য আনন্দের। উই এর প্রতিটি মেম্বের কে অভিনন্দন এবং নিশা আপু, রাজিব স্যারকে ধন্যবাদ। উই দেশীয় পণ্যের বিশাল বড় প্লাটফর্ম। উই এর সাথে ছিলাম এবং সর্বদা আছি।

উইমেন এন্ড ই-কমার্স ফোরাম(উই) টুক টুক করে এগিয়ে চলা সত্য ও সুন্দরের পূজারি হয়ে দেশীয় পন্য নিয়ে।

ক্রেতা ও বিক্রেতা একই প্লাটফর্মে যুক্ত হওয়ায় দ্রুত পসার হচ্ছে দেশিয় পণ্যের।

আমার আমিকে চিনেছি উই তে এসেই। উই তে এসেই জীবন বদলাতে শুরু করেছে আমার। আমার মত লাখো মানুষের সাপোর্ট উই। উই এর সাথে আছি, থাকবো।

দেশিণ্যের উদ্যোক্তাদের জন্য সবচেয়ে সেরা একটি প্লাটফর্ম এবং দেশিপণ্যের ই-কমার্স ইন্ডাস্ট্রির এত দ্রুত বেড়ে উঠা, মিলিয়ন মেম্বারের মাইলফলক স্পর্শ করাতে সবাইকে অনেক শুভেচ্ছা ও অভিনন্দন। এত চমৎকার একটি প্লাটফর্মকে দাঁড় করানোর পেছনে শ্রদ্ধেয় রাজিব স্যার, নিশা আপুসহ যারা অবদান রেখেছেন তাদের সবাইকে জানাই আন্তরিক কৃতজ্ঞতা। শুধুমাত্র দেশিপণ্যের সবচেয়ে সফল ও নির্ভরযোগ্য প্লাটফর্ম হিসেবে উই এগিয়ে যাক এই কামনা করি।

‘উই এখন দেশের নারী উদ্যোক্তাদের প্রাণের জায়গা। উই এর হাত ধরে দেশের অনেক মানুষ স্বাবলম্বী হয়েছে । দেশি পণ্য বিশ্বব্যাপী প্রচার পেয়েছে । উই এর উপদেষ্টা ও সার্চ ইংলিশের প্রতিষ্ঠাতা রাজিব আহমেদ ও উই এর প্রেসিডেন্ট নাসিমা আক্তার নিশা আপু কে ধন্যবাদ দিতে চাই । দেশিপণ্যের সবচেয়ে সফল ও নির্ভরযোগ্য প্লাটফর্ম হিসেবে উই এগিয়ে যাক এই কামনা করি।

আজকে উই এর এই সাফল্য এমন একটি সাফল্য যা দেশীয় পন্যের সকল উদ্যোক্তাদের সামনে এগিয়ে নিয়ে যেতে কয়েকগুণ বেশি সাহায্য করবে। ১০ লক্ষ্য মেম্বারের একটি উন্নয়নমূলক গ্রুপের সাথে কাজ করতে পেরে আমি গর্বিত এবং আনন্দিত।

উই হচ্ছে বাংলাদেশের একটি ফেসবুক বেসড গ্রুপ যা লাখো নারীকে বাংলাদেশি পণ্য নিয়ে কাজ করার অনুপ্রেরণা দিয়েছে এবং তার মাধ্যমে অর্থনৈতিক অবস্থার পরিবর্তন সম্ভব তা প্রমান করেছে।

উই শুধু দেশি পন্যের সবচেয়ে বড় প্লাটফর্মই নয় বরং এটা লক্ষ্য উদ্দ্যোক্তাদের জীবনের একটা গুরুত্ত্বপুর্ণ অংশও বটে। উইতে সবাই সবার ক্রেতা হয়ে একে অন্যের সহযোগী হয়েছে যার ফলে অযৌক্তিক প্রতিযোগিতার পরিবেশ হয়নি কখনো । উই এর কারনে দেশি পন্যের গ্রহনযোগ্যতা এখন সর্বত্র ছড়িয়ে পরেছে যা আমাদের দেশের অর্থনীতিকে আরও মজবুত করবে। দেশি পন্যের সেরা ও সবচেয়ে বড় প্লাটফর্ম women & e- Commerce forum ( WE) দশ লক্ষ্য সদস্যের মাইলফলক পুর্ণ করায় সকল সদস্য, মডারেটর, এডমিন,ডিরেক্টর কমিটি,ইসি কমিটি ও সম্মানিত উপদেষ্টাদের সবাইকে অনেক অভিনন্দন জানাই।

উই মানে এগিয়ে যাওয়ার শক্তি।দেশী পন্যের উদ্যোক্তাদের চলার পথের অনুপ্রেরণা।উই হলো হাজারো ঝড়ে পড়া মানুষের উঠে দাড়ানোর সম্বল।আমি গর্ববোধ করি উই পরিবার এর একজন হতে পেরে।উই এর ১০ লক্ষ মেম্বার সবাইকে আন্তরিক অভিনন্দন।

দেশিপণ্যের এই প্ল্যাটফর্মটি আলোর দিশারি হয়ে এভাবেই এগিয়ে চলেছে উদ্যোক্তাদের জন্য।

Share
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *