Tiktok(টিকটক)-Likee(লাইকি) প্রতিনিয়ত ধ্বংস করছে তরুন প্রজন্ম


শিমুল আহামেদ আদিব, নিজস্ব প্রতিবেদকঃ

টিকটক লাইকির নামক এপের সাথে আমাদের ছেলেমেয়ে প্রতিনিয়ত সময় নষ্ট করছে। এ কারণে আমাদের যুবসমাজ মানসিকভাবে অনেক ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছে। আমাদের সমাজের ছেলে মেয়ে অবচেতন মনটাকে জাগ্রত করতে বাধ্যপাপ্ত হচ্ছে। এই টিকটক-লাইকির কারণে তরুণদের অবচেতন মনের সৃজনশীল শক্তি ক্রমেই হারিয়ে যাচ্ছে। যা আমাদের ভবিষ্যতে শিক্ষার হার অনেক কমে আসবে। টিকটক-লাইকি সাধারণত 30 সেকেন্ড ২০ সেকেন্ড হয়ে থাকে। ডাক্তারদের মতে একটা ছেলে ও মেয়ে যদি প্রতিনিয়ত এটা যদি করতে থাকে; তাহলে তাদের ব্রেনে এবং হার্টের অনেক সমস্যা দেখা দেবে।মনকে স্থির করে কোন কাজ করতে পারবে না। এটার আরও বড় একটা সমস্যা হলো; লেখাপড়া ও চরিত্রের অনেক ক্ষতি করে যা আমাদের সবার জন্য দুঃখের সংবাদ! টিকটক ও লাইকি করা তরুণরা খুব সহজে সকল কাজ এবং কম সময়ে করতে চাই। এটা সবচেয়ে বেশি প্রভাব ফেলে লেখাপড়ায় এবং ওই কাজে সে যদি শেষে পর্যন্ত সফলতা না পায় তাহলে সে হতাশ হয়ে পড়ে। পরবর্তী সময়ে মনকে স্থির করতে পারে না। এবং অবচেতন মনটাকে আর কাজে লাগাতে পারে না। পরিশেষে একটা কথা সবার উদ্দেশ্যে বলতে চাই হাস্যকর জিনিস গুলো শুধু হাসাতেই পারে; শিক্ষা দিতে পারেনা। তবে শিক্ষার জন্য হাসার প্রয়োজন আছে। সুতরাং এটা জন্য একটা নিদিষ্ট টাইম আমাদের বেছে নেওয়া দরকার।

Share
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *